ইসলামী সূত্র

  • features

    1. home

    2. article

    3. সূরা রা’দের ২০ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    সূরা রা’দের ২০ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    সূরা রা’দের ২০ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা
    Rate this post

    ২০ নং আয়াতের অর্থঃ ” (বুদ্ধিমান তারাই)যারা আল্লাহর সাথে অঙ্গীকার রক্ষা করে এবং প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করে না, এবং আল্লাহ যে সম্পর্ক অক্ষুন্ন রাখতে আদেশ করেছেন যারা তা অক্ষুন্ন রাখে, তাদের প্রতিপালককে ভয় করে এবং ভয় করে কঠোর হিসাবকে।”

    এর আগের আয়াতে বিশ্বাসী মোমেন এবং অবিশ্বাসী কাফেরকে চক্ষুষ্মান ও অন্ধের সাথে তুলনা করা হয়েছে, এবং মোমেন বিশ্বাসীকে বুদ্ধিমান ও জ্ঞানী বলা হয়েছে। এই আয়াতেও মোমেন বিশ্বাসীদেরকে জ্ঞানী ও বুদ্ধিমান আখ্যায়িত করে বলা হয়েছে, বুদ্ধিমানদের বড় একটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে তারা কখনো ঐশি প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে না। সৃষ্টিকর্তার সাথে প্রত্যেক মানুষ এক ঐশি প্রতিশ্রুতিতে আবদ্ধ। এই প্রতিশ্রুতির মধ্যে কোনটা তত্বগত যেমন, সত্যের অনুসরণ ও ন্যায়কামিতা, কোনটা বুদ্ধিবৃত্তিক যেমন পরকালে বিশ্বাস আবার কোন কোন প্রতিশ্রুতি হচ্ছে ধর্মীয় অনুশাসনগত যেমন, বৈধ-অবৈধ বা হালাল-হারাম মেনে চলা ইত্যাদী। ফলে যারা বুদ্ধিমান এবং জ্ঞান নির্ভর তারা নির্দ্বিধায় সত্যকে গ্রহণ করে এবং তাদের অঙ্গীকার রক্ষার ব্যাপারে সচেষ্ট থাকে।
    তবে খোদার সাথে বান্দার গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গীকার হচ্ছে, মানুষ অত্যাচারী ও অসৎ শাসক গোষ্ঠির বিরুদ্ধে সংগ্রামে লিপ্ত হবে এবং সৎ ও ধর্মপরায়ণ শাসক গোষ্ঠিকে সর্বতঃভাবে সমর্থন ও সহযোগিতা করবে।
    আল্লাহতা’লা সূরা বাকারায় এ ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, আমার প্রতিশ্রুতি সীমালংঘনকারীদের জন্য প্রযোজ্য নয়। ইমানদারদের আরেকটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে তারা আত্মীয়তার বন্ধন রক্ষা করার ব্যাপারে অত্যন্ত যত্মবান। কারণ আল্লাহ তা’লা আত্মীয়তার বন্ধন রক্ষা করার ব্যাপারে জোর নির্দেশ দিয়েছেন। ইসলাম ধর্মে ধর্মীয় বন্ধনের গুরুত্বও অপরিসিম। পবিত্র কোরআনে একে ইমানদার ভাই বা দ্বীনি ভাই হিসেবে উল্লেখ করেছে। এই গুরুত্বের কারণেই ইমাম জাফর সাদেক(আঃ)তাঁর অন্তিম মুহূর্তে সকল আত্মীয় স্বজনের জন্য উপহার পাঠিয়েছিলেন। আত্মীয়-স্বজনদের যারা ইমামের সাথে বৈরী আচরন করতো ইমাম তাদের জন্যও উপহার পাঠান।
    আল্লাহর অসন্তুষ্টির ভয় এবং কৃত কর্মের জন্য যে হিসাব দিতে হবে সেজন্য মোমেন মুসলমানের মনে সব সময় ভয় কাজ করে। ইমানদারদের এটা বড় একটি বৈশিষ্ট্য।
    সেলায়ে রাহম বা আত্মীয়-স্বজনের মধ্যে সম্পর্ক রক্ষা করে চলা, একে অপরের সুখ-দুঃখের অংশীদার হওয়া, বিপদের সময় অন্যের জন্য সাহয্যের হাত বাড়িয়ে দেওয়ার ব্যাপারে ইসলাম যে শুধু অনুপ্রাণিত করেছে তাই নয়, ইসলাম এ ব্যাপারে জোরালো নির্দেশ দিয়েছে। কাজেই প্রকৃত মুসলমান হওয়ার জন্য এ বিষয়ে বিশেষ মনোযোগ দিতে হবে।