ইসলামী সূত্র

  • features

    1. home

    2. article

    3. সূরা হুদ- পর্ব : ১

    সূরা হুদ- পর্ব : ১

    সূরা হুদ- পর্ব : ১
    Rate this post

    মুফাসসিরদের অধিকাংশই মনে করেন, এই পবিত্র সূরাটি মক্কায় অবতীর্ণহয়েছে, মদিনায় হিজরতের আগে ভাগে রাসুলুল্লাহ ( সাঃ) যখন উম্মুল মুমেনিন হযরত খাদিজা ( সাঃ) ও প্রিয় চাচা আবু তালেবের মৃত্যুতে শোকাহত এবং কাফের-মুশরেকদের ক্রমবর্ধমানচাপ ও উৎপীড়নে জর্জরিত তখন এই সূরাটি অবতীর্ণ হয় এই সূরায় অনেক পয়গম্বরের, বিশেষকরে হযরত নূহ ( আঃ) এর ইতিহাস আলোচিত হয়েছে এবং বিশ্ব নবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) ওতার উম্মতকে ঈমানের উপর অবিচল থেকে ইসলাম বিরোধীদের মোকাবেলায় প্রতিরোধ গড়ে তোলারআহবান জানানো হয়েছে হযরত নূহ ( আঃ) এর পর আদ সম্প্রদায়ের কাছে হযরত হুদ ( আঃ)প্রেরিত হন তিনি তার সম্প্রদায়কে এক আল্লাহর উপাসনা করার এবং পাপ থেকে দুরে থাকারআহবান জানান এই সূরার ৫০ থেকে ৬০ নম্বর আয়াতে হযরত হুদ ( আঃ) এর সাথে আদ জাতিরআচরণ এবং তাদের পরিণতি সম্পর্কে বলা হয়েছে এবার আমরা মূল আলোচনায় যাচ্ছি প্রথমেই এই সূরার ১ ও ২ নম্বর আয়াত নিয়ে আলোচনা করা যাক আলিফ, লাম, রা, ( কোরআন )এমন এক গ্রন্থ যার আয়াত সমূহ বা বাক্যগুলোকে সুস্পষ্ট ও সুবিন্যস্ত করা হয়েছে তারপর যিনি প্রজ্ঞাময় ও সর্বজ্ঞ তার পক্ষ থেকে বিশদ ব্যাখ্যা দেয়া হয়েছে যে, তোমরাআল্লাহ ব্যতীত অন্যের উপাসনা করবে না আমি তার পক্ষ থেকে তোমাদের জন্য সতর্ক কারীও সুসংবাদ বাহক পবিত্র কোরআনের আরো ২৮টি সূরার মতো এই সূরাটিও হুরুফে মুকাত্তায়াবা আরবী বর্ণমালার ( আলিফ – ১ – ) দ্বারা শুরু হয়েছে এর মাধ্যমে এটা বুঝানো হয়েছেযে, পবিত্র কোরআন হচ্ছে শাশ্বত মুজেজা বা চিরন্তন অলৌকিক নিদর্শনযা এই বর্ণমালারদ্বারা সন্নিবেশিত হয়ে মানুষের কাছে উপস্থাপিত হয়েছে পবিত্র কোরআনের কোন সূরার মতএমনকি এর কোন আয়াত বা বাক্যের অনুরুপ কাব্য তৈরি করার সাধ্য কারো নেই পবিত্রকোরআনের প্রতিটি বাক্যে তওহীদ বা একত্ববাদের প্রাণ সঞ্চারমান , যা কোন কোন আয়াতেপ্রতিভাত হয়েছে এবং তা তত্ত্ব, উপদেশ ও বিধানাবলীরূপে বিশদভাবে বর্ণিত হয়েছে

    পবিত্র কোরআনই একমাত্র ঐশীগ্রন্থ যা বিবৃতির হাত থেকে সুরক্ষিতরয়েছে এবং যে গ্রন্থের সত্যতা ও মৌলিকত্বের ব্যাপারে সন্দেহের অবকাশ নেই পবিত্রকোরআন হচ্ছে ঐশী গ্রন্থ , এতে বিশ্বজগতের নিগুঢ় রহস্য বিধৃত হয়েছে এবং প্রজ্ঞাময়সর্বজ্ঞ সত্তা মহান আল্লাহ মানব জাতির জন্য এই বিধানাবলী সুবিন্যস্ত করেছেনএবারএই সূরার তিন ও চার নম্বর আয়াত নিয়ে আলোচনা করা যাক

    তোমরা তোমাদের প্রতিপালকের নিকট ক্ষমা প্রার্থনা কর ও তার দিকেপ্রত্যাবর্তন কর তিনি তোমাদেরকে এক নির্দিষ্ট কালের জন্য উত্তম জীবন উপভোগ করতেদেবেন এবং তিনি ধর্মাচরণে অধিক নিষ্ঠাবান প্রত্যেককে অধিক দান করবেনযদি তোমরা মুখফিরিয়ে নাও তবে আমি তোমাদের জন্য মহাদিনের শাস্তির আশঙ্কা করি আল্লাহরই নিকটতোমাদের প্রত্যাবর্তন এবং তিনি সর্ববিষয়ে সর্বশক্তিমান মানুষ যাতে আল্লাহরঅনুগ্রহ লাভের সৌভাগ্য অর্জন করতে পারে সেজন্য পয়গম্বরগণ একত্ববাদ প্রচারেরপাশাপাশি মানুষকে তার পাপের জন্য অনুশোচনা করতে উদ্বুদ্ধ করতেননবী রাসুলগণ সব সময়কামনা করতেন যে, ইমান এবং তওবার সুফল যেন মানুষ এই পার্থিব জগতেই উপভোগ করতে পারেআল্লাহর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে এবং অতীত পাপের জন্য অনুশোচিত হয়ে মানুষ যাতে এইজগতে আল্লাহর বিশেষ অনুগ্রহ লাভ করতে পারে পয়গম্বররা সে চেষ্টাই করে গেছেনতবে এতেকোন সন্দেহ নেই যে, পাপাচারী এবং সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর অবিশ্বাসীদের মধ্যে যাদেরকে এজগতে বাহ্যত প্রাচুর্যের অধিকারী বলে মনে হয়, তারা পরকালে নিশ্চিতভাবে তাদের কর্মেরউপযুক্ত পরিণতি ভোগ করবে

    এবার এই সূরার ৫ নম্বর আয়াতের দিকে নজর দিচ্ছি আল্লাহ রাব্বুলআলামীন এতে বলেছেন, ‘সাবধান ! তারা তার নিকট গোপন রাখার জন্য তাদের অন্তরের বিদ্বেষগোপন রাখে সাবধান ! তারা যখন নিজেদের অভিসন্ধি গোপন রাখে তখন তারা যা গোপন রাখেবা প্রকাশ করে তিনি তা জানেন অন্তুরে যা আছে তা তিনি সর্বশেষ অবহিত কপটতা ওভন্ডামী একটি ধর্মপ্রাণ জাতির জন্য বড় হুমকি হিসেবে বিবেচিত হতে পারে কপটতা এবংকথায় ও কাজে অমিল, এ ধরনের বৈশিষ্টগুলো মানুষকে বিভ্রান্তির গভীরে নিমজ্জিত করেযারা মুখে যা বলে কিন্তু অন্তরে তার উল্টো চিন্তা পোষন করে, এ আয়াতে এ ধরনেরবৈশিষ্ট্যের মানুষকেই ইঙ্গিত করা হয়েছেমুনাফিকরা মুসলমানদের ব্যাপারে মনে ভীষণবিদ্বেষ পোষণ করতো কিন্তু প্রকাশ্যে তারা মুসলমানদের ঘনিষ্ট বন্ধু হিসেবে দেখানোরচেষ্টা করতো মুসলমানদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য সুন্দর সুন্দর কথা বলতো মুনাফিকদের এই হীন আচরণের ব্যাপারে এই আয়াতে বলা হয়েছে, তারা যা বলে এবং যা তাদেরঅন্তরে আছে আল্লাহ সবই জানেন কোন কিছুই আল্লাহর জ্ঞানের বাইরে নেইএই আয়াতেআমাদেরকে এই শিক্ষাই দেয়া হয়েছে যে,যারা ধর্ম ও আদর্শের সাথে বিশ্বসঘাতকতা করেতাদের জেনে রাখা উচিত, সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর কাছে গোপন ও প্রকাশ্য সবই সমানতিনি সবদেখছেন এবং সবই জানেনপ্রত্যেকের অন্তরে যা আছে তাও আল্লাহর কাছে সুস্পষ্ট