ইসলামী সূত্র

Languages
ALL
E-Books
Articles

date

  1. date
  2. title
  •  “হে মুমিনগন, আল্লাহকে ভয় কর, তার নৈকট্য অন্বেষন কর, এবং তার পথে জেহাদ করো, যাতে তোমরা সফলকাম হও।”
    Rate this post

    “হে মুমিনগন, আল্লাহকে ভয় কর, তার নৈকট্য অন্বেষন কর, এবং তার পথে জেহাদ করো, যাতে তোমরা সফলকাম হও।”

    Rate this post আল মায়ীদা রুকু;-৬ আয়াত;-৩৫-৪৩ কোরানের কথা-৯৮ আলোচ্য রুকুটি আল্লাহর নৈকট্য লাভের আহবান ও চুরির অপরাধে ইসলামী বিধান অনুযায়ী জাগতীক শাস্তীর কথা নিয়ে আসছে। ৩৫/يَا أَيُّهَا الَّذِينَ آمَنُواْ اتَّقُواْ اللّهَ وَابْتَغُواْ إِلَيهِ الْوَسِيلَةَ وَجَاهِدُواْ فِي سَبِيلِهِ لَعَلَّكُمْ تُفْلِحُونَ অর্থাৎ;-হে মুমিন গন, আল্লাহকে ভয় কর, তার নৈকট্য অন্বেষণ কর এবং তার পথে জেহাদ কর, […]

  • Rate this post

    “অতএব, সেদিন দূরে নয় যেদিন আল্লাহ তায়ালা বিজয় ঘোষনা করবেন।”

    Rate this post আল-মায়ীদা;-রুকু ৮ আয়াত;-৫১-৫৬ কোঃ কথা-১০০ আমরা ১৪ নং আয়াতে পড়ে এসেছি, আল্লাহ বলেন, ‘আমি ইহুদী ও নাসারাদের মাঝে চিরস্থায়ী শত্রুতা সৃষ্টি করে দিয়েছি’। আর এ আয়াতে বলা হচ্ছে, তারা পরষ্পর বন্ধু। তফসীরকার গন বলেন। এ আয়াতটি ছিল আল্লাহর ভবিষ্যতের বাণী,যা বর্তমানে কার্য করি হচ্ছে। বর্তমানে তারা পরষ্পর জাগতীক দায় বদ্ধতা ও মিলিত […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১২-১৩ নং আয়াতের অর্থসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post এই সূরার ১২ নং আয়াতে বলা হয়েছেঃ “তিনিই তোমাদেরকে বিজলী দেখান -যা ভয় ও ভরসা সঞ্চার করে এবং তিনি সৃষ্টি করেন ঘন মেঘ। বজ্র নির্ঘোষ ও ফেরেশতারা সভয়ে তাঁর সপ্রশংস মহিমা ও পবিত্রতা ঘোষণা করে এবং তিনি বজ্রপাত করেন এবং যাকে ইচ্ছা তা দিয়ে আঘাত করেন, তারপরও তারা আল্লাহ সম্বন্ধে বিতন্ডা করে। […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১১ নং আয়াতের অর্থসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ” মানুষের জন্য তার সম্মুখে ও পশ্চাতে একের পর এক প্রহরী থাকে, তারা আল্লাহর আদেশে তার রক্ষণাবেক্ষণ করে। আল্লাহ অবশ্যই কোন সম্প্রদায়ের অবস্থা পরিবর্তন করেন না যতক্ষণ না তারা নিজ অবস্থা নিজে পরিবর্তন করে। কোন সম্প্রদায় সম্পর্কে আল্লাহ যদি অশুভ কিছু ইচ্ছা করেন তবে তা রদ করার কেউ নেই। এবং তিনি ব্যতীত […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ৯-১০ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ৯ এবং ১০ নং আয়াতে আল্লাহ রাব্বুল আলামীন বলেছেনঃ ” যা অদৃশ্য ও যা দৃশ্যমান তিনি তা অবগত, তিনি মহান, সর্বোচ্চ মর্যাদাবান। তোমাদের মধ্যে যে ব্যক্তি গোপনে কথা বলে এবং যে ব্যক্তি উচ্চস্বরে কথা বলে তেমনি যে রাতে আত্মগোপন করে এবং যে দিনে প্রকাশ্যে বিচরণ করে তারা সবাই সমভাবেই আল্লাহর জ্ঞানগোচর হয়।” […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ৮ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post এই সূরার ৮ নং আয়াতে বলা হয়েছে, “নারীর গর্ভে যা আছে এবং জরায়ুতে যা কিছু পরিবর্তন ঘটে আল্লাহ তা জানেন এবং তার কাছে প্রত্যেক বস্তুরই একটি পরিমাণ রয়েছে।” এই আয়াতে সৃষ্টিকর্তা মহান আল্লাহর সীমাহীন জ্ঞান ও প্রজ্ঞার সামান্য ধারণা দেওয়া হয়েছে। তিনি জগতের প্রকাশ্য ও অপ্রকাশ্য সব কিছু সম্পর্কেই অবহিত। মা’য়ের পেটে […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ৭ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামীনের দরবারে কৃতজ্ঞ এবং বিশ্ব নবী, সারওয়ারে কায়েনাত মোহাম্মাদ মোস্তফা(সা)ও তাঁর পবিত্র বংশধরদের প্রতি সালাম ও শুভাশীষ নিবেদন। ৭ নং আয়াতে বলা হয়েছে, “সত্য প্রত্যাখ্যানকারী কাফেররা বলে তার প্রতি তার পালনকর্তার পক্ষ থেকে কোন মোজেজা বা নিদর্শন অবতীর্ণ হলো না কেন?  ( হে রাসুল) আপনি তো কেবল সতর্ককারী, এবং […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ২৬ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ২৬ নং আয়াতটিতে বলা হয়েছে, “আল্লাহ যার জন্য ইচ্ছা তার জীবনোপকরণ বৃদ্ধি করে দেন এবং যার জন্য ইচ্ছা তা সঙ্কুচিত করেন। কিন্তু তারা (কাফেররা)পার্থিব জীবণের প্রতিই মুগ্ধ। পার্থিব জগত পরকালের তুলনায় তুচ্ছ সম্পদ বৈ কিছু নয়।” সৎ এবং অসৎ ব্যক্তিদের পরিণতির বর্ণনা দেওয়ার পর এই আয়াতে বলা হচ্ছে, ইহকাল ও পরকালে এই […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ২৫ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ২৫ নং আয়াতটির অর্থঃ “যারা আল্লাহর সাথে দৃঢ় অঙ্গীকারে আবদ্ধ হওয়ার পর তা ভঙ্গ করে, যে সম্পর্ক অক্ষুন্ন রাখতে আল্লাহ আদেশ করেছেন তা ছিন্ন করে এবং পৃথিবীতে অশান্তি সৃষ্টি করে বেড়ায় তাদেরই জন্য আছে অভিশাপ এবং তাদেরই জন্য রয়েছে নিকৃষ্ট আবাস।” ঐশি বিধানের প্রতি অনুগত ধর্মপ্রাণ বিবেকবান এবং সহনশীল ব্যক্তিদের সম্পর্কে বলার […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ২৩ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ২৩ নং আয়াতের অর্থঃ ” স্থায়ী স্বর্গে তারা এবং তাদের সৎকর্মশীল পিতা-মাতা, পতি-পত্নী ও সন্তানগণ প্রবেশ করবে এবং ফেরেশতাগণ তাদের নিকট প্রত্যেক দ্বার দিয়ে উপস্থিত হবে এবং বলবে, তোমরা কষ্ট বরণ করেছ বলে তোমাদের প্রতি শান্তি। এই পরিণাম কত ভাল!” আগের আয়াতে বলা হয়েছে, মুমিন মুসলমানরা আল্লাহর এবাদত-বন্দেগীতে যেমন নিষ্ঠাবান তেমনি তারা […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ২২ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ২২ নং আয়াতে বলা হয়েছে- “যারা তাদের প্রতিপালকের সন্তুষ্টি লাভের জন্য ধৈর্য ধারণ করে, যথাযথভাবে নামাজ পড়ে, আমি তাদেরকে যে জীবনোপকরণ দিয়েছি তা থেকে গোপনে ও প্রকাশ্যে ব্যয় করে এবং যারা ভাল দ্বারা মন্দকে দূর করে, তাদের জন্য রয়েছে শুভ পরিণাম।” মোমেনদের আরেকটি বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, তারা প্রতিকূল পরিবেশে ধৈর্য্য ধারণ করতে পারে […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ২০ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ২০ নং আয়াতের অর্থঃ ” (বুদ্ধিমান তারাই)যারা আল্লাহর সাথে অঙ্গীকার রক্ষা করে এবং প্রতিজ্ঞা ভঙ্গ করে না, এবং আল্লাহ যে সম্পর্ক অক্ষুন্ন রাখতে আদেশ করেছেন যারা তা অক্ষুন্ন রাখে, তাদের প্রতিপালককে ভয় করে এবং ভয় করে কঠোর হিসাবকে।” এর আগের আয়াতে বিশ্বাসী মোমেন এবং অবিশ্বাসী কাফেরকে চক্ষুষ্মান ও অন্ধের সাথে তুলনা করা […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১৯ নং আয়াতের অর্থসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ১৯ নং আয়াতে বলা হয়েছে, ” আপনার প্রতিপালকের পক্ষ থেকে আপনার উপর যা অবতীর্ণ হয়েছে তাকে যে ব্যক্তি সত্য বলে বিশ্বাস করে, তার সাথে জ্ঞানান্ধ ব্যক্তির কি তুলনা চলে? বোধশক্তিসম্পন্ন ব্যক্তিরাই শুধু উপদেশ গ্রহন করে।” বিশ্বাসী ও অবিশ্বাসীদের মধ্যে পার্থক্য বর্ণনা দিয়ে এই আয়াতে বলা হয়েছে, সত্য দ্বীন বা জীবন বিধানকে যারা […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১৮ নং আয়াতের অর্থসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ১৮ নং আয়াতে বলা হয়েছে, ” যারা প্রতিপালকের আদেশ পালন করে তাদের জন্য উত্তম প্রতিদান রয়েছে। এবং যারা আদেশ পালন করে না তাদের কাছে যদি জগতের সব কিছু থাকতো এবং তার সাথে সমপরিমাণ আরো কিছু থাকতো তাহলে সবই শাস্তি থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য দিয়ে দিত। তাদের হিসাব হবে কঠোর এবং জাহান্নাম হবে […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১৭ নং আয়াতের অর্থসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post প্রথমে দেখা যাক ১৭ নং আয়াতে কি বলা হয়েছে- “তিনি আকাশ থেকে পানি বর্ষন করেন। অতঃপর স্রোতধারা প্রবাহিত হতে থাকে নিজ নিজ পরিমাণ অনুযায়ী। অতঃপর প্লাবন তার উপরিস্থিত আবর্জনা বহন করে। যখন অলংকার অথবা তৈজসপত্র নির্মাণের উদ্দেশ্যে কিছু অগ্নিতে উত্তপ্ত করা হয় তখন এরূপে আবর্জনা উপরিভাগে আসে। এভাবে আল্লাহ সত্য ও অসত্যের […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১৬ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post ১৬ নং আয়াতটিতে বলা হয়েছে, “(হে নবী বলুন) কে আকাশ মন্ডলী ও পৃথিবীর প্রতিপালক? বলুন তিনি আল্লাহ। বলুন তবে কি তোমরা আল্লাহর পরিবর্তে অপরকে অভিভাবকরূপে গ্রহন করেছ যারা নিজেদের লাভ বা ক্ষতি সাধনে সক্ষম নয়? বলুন অন্ধ ও চক্ষুষ্মান কি সমান? অথবা অন্ধকার ও আলো কি এক? তবে কি তারা আল্লাহর এমন […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১৫ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post এই আয়াতে বলা হয়েছে, ” ইচ্ছায় বা অনিচ্ছায় আল্লাহর প্রতি আকাশমন্ডলী ও পৃথিবীতে যা কিছু আছে সব কিছুই এবং তাদের ছায়াগুলোও সকাল সন্ধায় সিজদায় অবনত থাকে।” পৃথিবীতে যা কিছু আছে সবই সৃষ্টিকর্তা আল্লাহর উদ্দেশে মাথানত করে । সূরা নাহলের ৪৯ আয়াতেও বলা হয়েছে, “যা কিছু আকাশ মন্ডলীতে আছে আল্লাহকেই সিজদা করে। পৃথিবীতে […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দের ১৪ নং আয়াতের অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা

    Rate this post “তাকে ডাকাই বাস্তব এবং তাকে ছাড়া তারা যাদেরকে ডাকে, তারা তাদের কোন কাজে আসে না। তাদের দৃষ্টান্ত সেই ব্যক্তির মত যে তার মুখে পানি পৌঁছাবে এ আশায় তার হস্তদ্বয় এমন পানির দিকে প্রসারিত করে যা তার মুখে পৌয়ছাবার নয়। সত্য প্রত্যাখ্যানকারী কাফেরদের আহ্বান নিষ্ফল।” বিশ্ব জগতে মহান আল্লাহর পরাক্রম এবং স্রষ্টার প্রতি […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দ ছয় নং আয়াতের অনুবাদসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা উপস্থাপন

    Rate this post ছয় নম্বর আয়াতে বলা হয়েছে” তারা আপনার কাছে মঙ্গলের পরিবর্তে দ্রুত অমঙ্গল কামনা করে। যদিও তাদের পূর্বে এর বহু দৃষ্টান্ত গত হয়েছে। মানুষের সীমালঙ্ঘন সত্ত্বেও আপনার প্রতিপালক মানুষের প্রতি ক্ষমাশীল। এবং নিশ্চয়ই আপনার প্রতিপালক শাস্তিদানেও কঠোর।” আল্লাহর রাসুল (ছঃ) যখন হুমকির সূরে মানুষকে সতর্ক করে দিয়ে বলতেন, যদি সৃষ্টিকর্তা মহান আল্লাহর নির্দেশ […]

  • Rate this post

    সূরা রা’দ পাঁচ নং আয়াতের অনুবাদসহ সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা উপস্থাপন

    Rate this post পঞ্চম আয়াতে বলা হয়েছে- ” হে নবী আপনি যদি বিষ্মিত হন, তাহলে তাদের কথাই তো বিষ্ময়কর, (যারা বলে) মাটিতে পরিণত হওয়ার পরও কি আমরা নতুন জীবন লাভ করব? তারাই তাদের প্রতিপালককে অস্বীকার করে এবং তাদেরই গলদেশে থাকবে লৌহ-শৃংখল। তারাই নরকবাসী। সেখানে তারা চিরকাল থাকবে।” এই আয়াতে আল্লাহর রাসুলকে সান্ব্”না দিয়ে বলা হয়েছে, […]

more